ভর্তি জালিয়াতির ঘটনায় বেরোবিতে শিক্ষকদের পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি জালিয়াতির অভিযোগের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

ভর্তি জালিয়াতির ঘটনা নিয়ে শিক্ষকদের দুটি গ্রুপ দোষারোপ করছে পরস্পরকে। ‘বি’ ইউনিটে পরীক্ষায় অংশ না নিয়েও প্রথম স্থান অধিকার করা এক শিক্ষার্থীর ঘটনা স্বীকার করা বক্তব্যের অডিও ক্লিপকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার দুপুরে এ পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সূত্র জানায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা প্রগতিশীল শিক্ষকসমাজ ও নীল দল ব্যানারে বিভক্ত। প্রগতিশীল শিক্ষকসমাজ উপাচার্যপন্থী হিসেবে পরিচিত আর নীল দল মূলত উপাচার্যবিরোধী পক্ষ বলে পরিচিত।

সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মো. নজরুল ইসলাম লিখিত বক্তব্যে জানান, এবারে অনুষ্ঠিত ভর্তি পরীক্ষায় ২৬ থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত ‘বি’ ইউনিটের সহ-সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের সাক্ষাৎকার নেওয়ার সময় ১৭ ডিসেম্বর ‘বি’ ইউনিটে প্রথম স্থান অধিকারী শিক্ষার্থী শামস বিন শাহারিয়ার প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ভর্তি জালিয়াতির মাধ্যমে প্রথম স্থান অধিকার করার কথা স্বীকার করে। সেই সাথে এই ঘটনায় এক শিক্ষক জড়িত বলে জানায় সে।

ড. নজরুল ইসলাম বলেন, ‘এ সময় কয়েকজন শিক্ষক আমার নাম জড়িয়ে ওই ছাত্রের স্বীকারোক্তি তাদের মোবাইল ফোনে রেকর্ড করেন।’ তিনি অভিযোগ করেন সেই অডিও ক্লিপটি গণমাধ্যমসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে তার মর্যাদা ক্ষুণ্ন করা হয়েছে। ওই বিভাগের শিক্ষক তাবিউর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের নেতারা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

এরপরেই বাংলা বিভাগে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেন আরেক সংগঠন নীল দলের শিক্ষকরা। নীল দলের সদস্য এবং শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. তুহিন ওয়াদুদ লিখিত বক্তব্যে ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস ও ভর্তি জালিয়াতির সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ৫ দফা দাবিও উত্থাপন করা হয়। তাঁরা ভর্তি পরীক্ষার সাক্ষাৎকার বোর্ড থেকে লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আসাদুজ্জামান মণ্ডল ও প্রভাষক সামান্তা তামরিনকে বাদ দেওয়ার বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।  নীল দলের সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি তুহিন ওয়াদুদ, নীল দলের সাধারণ সম্পাদক আপেল মাহমুদ, সহসভাপতি বেলাল উদ্দিন প্রমুখ।

আরও পড়তে পারেন: বিএনপির সমাবেশের অনুমতি দিতে রাজি হয়নি ডিএমপি

***পীরগঞ্জ টোয়েন্টিফোরে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।***

আরও পড়ুন...

  • Shafiur Rahman

    আর কত ঘটনা দেখবো বেরোবিতে। এই বিশ্ববিদ্যালয় শুরু থেকেই বিশৃঙ্খলাতে জর্জরিত। আর কত?

  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

    সব ঘোড়ার ঘাস কাটার দল…

  • Ashikur Rahman

    বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় আর কত প্রকার যে জালিয়াতি দেখবো।