সি-মি-উই-৫ এর পাওয়ার ক্যাবল কাটা পড়ায় ধীরগতির ইন্টারনেট

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ২০০৫ সালে প্রথম সাবমেরিন কেবল ‘সি-মি-উই-৪’ এ যুক্ত হয়। এরপরে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল ল্যান্ডিং স্টেশনের মাধ্যমে সি-মি-উই-৫ সাবমেরিন ক্যাবলে যুক্ত হয় বাংলাদেশ। রবিবার (৯ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে সি-মি-উই-৫ এর পাওয়ার ক্যাবল কাটা পড়ে। তারপর থেকে কমে গেছে দেশে ইন্টারনেটে গতি।

বালু তোলার সময় এক্সকাভেটর ব্যবহার করতে গিয়ে সাবমেরিন সি-মি-উই-৫ এর পাওয়ার সাপ্লাই ও অপটিক্যাল ফাইবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। দেশের ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবি’র সভাপতি বলেন, ‘মূল ক্যাবল নয়, পাওয়ার ক্যাবল কাটা পড়েছে। ফলে রিপিটারে বিদ্যুৎ যাচ্ছে না। এজন্য ব্যান্ডউইথ পেতে সমস্যা হচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন: কাল্পনিক এজাহার সাজিয়ে থানায় মামলা, এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি

দেশে বর্তমানে ১ হাজার ৭৫০ জিবিপিএস (গিগাবাইট পার সেকেন্ড) ব্যান্ডউইথ ব্যবহার হচ্ছে। বাংলাদেশ দ্বিতীয় এই স্টেশনের মাধ্যমে সাবমেরিন কেবল থেকে সেকেন্ডে ১ হাজার ৫০০ গিগাবিট (জিবি) গতির ইন্টারনেট পায়।

দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল থেকে দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারের প্রায় অর্ধেক ব্যান্ডউইথ সরবরাহ করা হয়। ফলে, ইন্টারনেটের গতি সারাদেশে কমে গেছে। বাংলাদেশের সঙ্গে সিঙ্গাপুরের প্রায় ৬০ শতাংশ যোগাযোগ এখন বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে। মেরামতের কাজ চলছে, খারাপ আবহাওয়া বিরাজ করায় পাওয়ার ক্যাবল মেরামতে দেরি হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

***পীরগঞ্জ টোয়েন্টিফোরে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।***

Content Protection by DMCA.com