- বিজ্ঞাপন -
24.7 C
Pirganj
হোমসমগ্র পীরগঞ্জপরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী

পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী

- বিজ্ঞাপন -

আজ খ্যাতনামা পরমাণু বিজ্ঞানী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জ্যেষ্ঠ জামাতা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-এর স্বামী, প্রয়াত ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া-এর ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী। রংপুর পীরগঞ্জে এ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

সোমবার পীরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ, ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া ফাউন্ডেশন এবং আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন, বিভিন্ন সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠন এবং সুশীলসমাজের পক্ষ থেকে লালদীঘির ফতেহপুরে জয়সদনে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

প্রয়াত পরমাণু বিজ্ঞানীর কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তার ভাতিজা পীরগঞ্জ পৌর মেয়র ও পীরগঞ্জ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক তাজিমুল ইসলাম শামিম, পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল আমিন রাজা, পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব হাইফুজ্জামান ফুল, সাধারণ সম্পাদক আসিয়ার রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিরোদা রানী, উপজেলা চেয়্যারম্যন নূর মোহাম্মদ মন্ডল, উপজেলা ভাইস চেয়্যারম্যান মিলন মন্ডল, পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আউয়াল ও সাংবাদিক গণ সহ পীরগঞ্জের সকল কর্মকতা গণ। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক করিম নাফিউল নাফা সহ রংপুর জেলা ও পীরগঞ্জ উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগ সহ সকল অঙ্গ সংঠনের নেতাকর্মীগণ।

জয়সদনে এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের পর দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

২০০৯ সালের ৯ মে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। এটি তার ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী। তিনি ছিলেন বাংলাদেশের একজন খ্যাতনামা পরমাণু বিজ্ঞানী। তিনি বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জামাতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া তিনি ১৬ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪২ খ্রিষ্টাব্দ রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার ফতেহপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিন বোন ও চার ভাইয়ের মধ্যে তিনি সর্ব কনিষ্ঠ। তাঁর মাতা ময়েজুন্নেসা এবং বাবা আব্দুল কাদের মিয়া।

চককরিম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তিনি প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করেন। রংপুর জিলা স্কুল থেকে তিনি ডিসটিনকশনসহ প্রথম বিভাগে মেট্রিকুলেশন পাশ করেন। ১৯৫৬ সালে রংপুর জিলা স্কুল থেকে ম্যাট্রিক পাশ করার পর ১৯৫৮ সালে রাজশাহী সরকারি কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে পদার্থবিজ্ঞানে১৯৬২ সালে তিনি এমএসসি পাশ করেন। লন্ডনের ডারহাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৬৭ সালে ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পদার্থবিজ্ঞানে পড়ার সময় থেকেই ধীরে ধীরে সংশ্লিষ্ট হতে শুরু করেন রাজনীতির সাথে।

১৯৬১ সালে ফজলুল হক হলের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ছাত্রলীগ থেকে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন তিনি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদার্থবিজ্ঞানে এমএসসি পাশ করার পর ১৯৬৩ সালে তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তানের লাহোরে আণবিক শক্তি কমিশনে চাকরিতে যোগ দেন।

১৯৬৭ সালে লন্ডনের ডারহাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টরেট ডিগ্রি লাভের পর দেশে ফিরে ওই বছরে ১৭ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে তিনি বিয়ে করেন। স্বৈরশাসনবিরোধী আন্দোলনের কারণে তিনি কিছুদিন কারাবরণ করেন।

ড. ওয়াজেদ মিয়া পারমানবিক শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে ১৯৯৯ সালে অবসর নেন। দীর্ঘদিন কিডনির সমস্যাসহ হৃদরোগ ও শ্বাসকষ্ট ভোগ করে ২০০৯ সালের ৯ই মে বিকেল ৪টা ২৫ মিনিটে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ৬৭ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।

***পীরগঞ্জ টোয়েন্টিফোরে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।***

Content Protection by DMCA.com
- বিজ্ঞাপন -
- বিজ্ঞাপন -

সর্বশেষ

মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

আরো খবর

- বিজ্ঞাপন -