বাংলাদেশে আরো হামলার হুমকি: গুলশানে হামলাকারীদের প্রশংসায় আইএস-এর ভিডিওবার্তা

ইসলামিক স্টেট সিরিয়া থেকে প্রকাশিত এক ভিডিওতে বাংলাদেশি জিহাদিদের দ্বারা বাংলাদেশে আরো হামলার হুমকি দিয়েছে। ভিডিওতে তিন বাংলাদেশিকে বাংলা, ইংরেজি, আরবিতে বক্তব‍্য দিতে দেখা গেছে।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) এক ভিডিওবার্তায় এ হুমকি দিয়েছে সিরিয়ার আর-রাকায় অবস্থানরত তিনজন বাংলাদেশি আইএস সদস্য। সাইট ইনটেলিজেন্ট গ্রুপের ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১ জুলাই) রাতে গুলশান-২-এর ৭৯ নম্বর সড়কের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা চালায় জঙ্গিরা। এতে ২ পুলিশ সদস্য, ১৭ বিদেশি নাগরিক ও ৩ বাংলাদেশি নিহত হন। পরে কমান্ডো অভিযানে ৬ জঙ্গি নিহত হয় বলে শনিবার সেনা সদরে এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। অভিযানে জীবিত উদ্ধার করা হয় ৩ বিদেশিসহ ১৩ জিম্মিকে। এছাড়া ১ জনকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয়।

নিহতদের মধ্যে ৯ জন ইতালীয়, ৭ জন জাপানি ও ১ জন ভারতের নাগরিক। বাকি ৩ জন বাংলাদেশি, যাদের মধ্যে ১ জনের যুক্তরাষ্ট্রেরও নাগরিকত্ব ছিল। নিহত ৭ জাপানির মধ্যে ৬ জনই মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজে নিয়োজিত ছিলেন।

ভিডিওটিতে গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলাকারীদের প্রশংসা করে ওই তিন আইএস সদস্য। ‘বাংলায় খিলাফাহর বীরদের প্রতি’  শিরোনামের প্রায় পাঁচ মিনিটের ওই ভিডিওতে প্রথমে বাংলাদেশ প্যারিস সহ কযেক জায়গার হামলার কিছু চিত্র তুলে ধরা হয়। এরপর আরবিতে, বাংলাতে আর ইংরেজিতে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে তারা বার্তা দেয়। তাদের বক্তব্যের কিছু অংশ নিচে দেওয়া হল।

‘বাংলাদেশের তাগ্বুদ সরকার, এদের কর্মচারী এবং এদের সমর্থকদের উদ্দেশ্যে। আমি তোমাদের সবাইকে প্রশ্ন করতে চাই যে কেমন করে তোমরা ডেমোক্রেসিকে সাপোর্ট কর? ডেমোক্রেসি নামক এই শিরকী মতবাদকে তোমরা কিভাবে সাপোর্ট কর? তোমরা কি জানোনা যে ডেমোক্রেসি হচ্ছে সেই মতবাদ যে মতবাদ বলে যে ক্ষমতা এবং আইন প্রণয়ন করার ক্ষমতা মানুষের হাতে। যেখানে আল্লাহ কোরআনে বলে দিয়েছেন যে আইন একমাত্র আল্লাহর। আমি বাংলাদেশের তাগ্বুদ সরকারের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, যেই জিহাদ আজ বাংলাদেশে এসছে, যেই জিহাদ আজ তোমরা প্রতক্ষ্য করছো, এরকম জিহাদ তোমরা এর আগে কক্ষনো দেখনি। এই জিহাদ হচ্ছে সেই জিহাদ, সেই খেলাফত জিহাদ যার প্রতিশ্রুতি রাসুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম করে গিয়েছিলেন। সুতরাং তোমরা কখনোই এই জিহাদকে বন্ধ করতে পারবেনা। যতক্ষণ পর্যন্ত না আমরা জয়ী হই এবং তোমরা পরাজিত হও এবং সারা দুনিয়ার বুকে খেলাফত শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়। শরীয়াহ্ আইন প্রতিষ্ঠিত হয়। একে তোমরা কখনোই রুখতে পারবেনা। সুতরাং এর চেষ্টা করে কোন লাভ নেই। এবং সর্বশেষ আমি ক্রসেডারদের প্রতি এই বার্তাটি প্রেরণ করতে চাই, খৃস্টান, ইহুদী, ক্রুসেডার এবং তাদের মিত্রদের প্রতি, যখন শায়খ আদনানী আমাদের আদেশ করেছেন তোমাদের সাথে যুদ্ধ করার জন্য, তখন তিনি তা কৌতুক করে বলেন নি। আমরা শেষ পর্যন্ত তোমাদের সাথে লড়ে যাব, হয় আমরা বিজয়ী হবো অথবা শাহাদাহ লাভ করব। তাই আমাদের হারানোর কিছু নেই। তাই এই যুদ্ধ হলো এমন যুদ্ধ যাতে তোমরা কখনই জয়ী হবে না।  এবং আল্লাহর অনুমতিক্রমে তোমরা কখনই জয়ী হবে না। এবং বাংলাদেশে তোমরা যা দেখেছো তা একটি ঝলক ছাড়া আর কিছুই নয়। এবং তা বারবার পুনরাবৃত্ত হতে থাকবে যতক্ষণ না তোমরা পরাজিত হও আর আমরা বিজয়ী হই। এবং পৃথিবীর কোনায় শারীয়াহ প্রতিষ্ঠিত হয়। এবং আল্লাহর অনুমতিক্রমে তোমরা কখনই তা বন্ধ করতে সক্ষম হবে না।’

—বাংলাদেশ সময়: ভোর ০৫:৩৯ ঘণ্টা, জুলাই ০৬, ২০১৬

তথ্যসূত্র: সাইট ইন্টেলিজেন্স, বাংলা ট্রিবিউন, সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর

***পীরগঞ্জ টোয়েন্টিফোরে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।***

***পীরগঞ্জ টোয়েন্টিফোরে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।***

আরও পড়ুন...